দুর্নীতি বিরোধী সংবাদ প্রকাশ করায় হবিগঞ্জ প্রভাকর পত্রিকার সম্পাদক ও এটিএন বাংলার হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি আব্দুল হালিম,ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সহিবুর রহমান,বার্তা সম্পাদক আজহারুল ইসলাম মুরাদ ও প্রতিবেদক শেখ শাহাউর রহমান বেলালের উপর মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে নবীগঞ্জ সাংবাদিকবৃন্দ ও প্রভাকর পাঠক সমাজ উদ্যোগে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।গতকাল সোমবার বিকেলে নতুন বাজার মোড়ে এই মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর মিয়ার সভাপতিত্বে ও প্রভাকর পত্রিকার নবীগঞ্জ প্রতিনিধি রুমেল আহমেদের সঞ্চালনায় উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুরাদ আহমদ,সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি দৈনিক হবিগঞ্জ সময় পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সেলিম তালুকদার,অনু আহমদ,জয়নাল আবেদিন, এম এ রহিম,ইমরান আহমেদ রেজা,সাংবাদিক আল হাসান লিটন,নবীগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ নাবেদ মিয়া,নবীগঞ্জ সংবাদিক স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ছনি চৌধুরী,সাংবাদিক শওকত আহমেদ,মোঃ হাসান চৌধুরী,ইকবাল হোসেন তালুকদার,সফিকুল ইসলাম নাহিদ,অঞ্জুন রায়,মোফাজ্জল ইসলাম সজীব,নীরব তালুকদার,আশরাফুল ইসলাম,তাজুল ইসলাম,সেলিম উদ্দিন,জাবেদুর রহমান,সুমন আলী খান প্রমুখ।উপস্থিত সাংবাদিক ও নেতাকর্মীদের একটাই দাবী অতিবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে নতুবা পরবর্তীতে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন বক্তারা।

নবীগঞ্জে উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের খনকারী পাড়া গ্রামে মজসিদের  বিল ইজারা ঘটনাকে কেন্দ্র  প্রভাবশালী পরিবারের হামলায় মোঃ রেজাউর করিম চৌধুরী (৩৫) উপর দুর্বত্তদের হামলা। এ ঘটনায় নবীগঞ্জ থানায় ৬ জনের বিরোদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, উল্লেখিত গ্রামের মসজিদের মোতওয়াল্লী হাজি আব্দুল কাদির পঞ্চায়েতি গত শুক্রবার জুম্মার নামাযের পর বাদী বিল নিলামে ইজারা দেন। আমি আব্দুল কাদিরকে জিজ্ঞাসা করি আপনি গ্রামের পঞ্চায়েতের মাধ্যমে নিলাম দিয়েছেন নাকি একামতে ওই বিল নিলাম করচ্ছেন বলার পর মুহিবুর রহমান আমার প্রতি উত্তেজিত হয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। আমাদের দুজনের তর্ক বির্তকের এক পর্যায়ে মুহিবুর রহমান ভাই উপজেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক সোহেল আহমদ চৌধুরী রিপন,সেনু মিয়া চৌধুরী,জুয়েল মিয়া চৌধুরী,মুহবুর রহমানের পুত্র রাবি মিয়া চৌধুরী ও অবি মিয়া চৌধুরীসহ ৪/৫ লোক মিলে তার উপর হামলায় চালায়। তার আতœ চিৎকারের আশ পাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে চিকিৎসা করেন। এ ঘটনায় রেজাউল করিম চৌধুরী নবীগঞ্জ থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।  এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আজিজুর রহমান বলেন,অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


নতুন করে গুঞ্জন উঠেছে রায়হান হত্যাকারী ঘাতক আকবর মেঘালয়ে পালিয়েছে। এটাও আকবর কে নিরাপত্তায় রাখায় গোপন চাল। গোয়েন্দাদের চোখ ফাঁকি দিয়ে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর এ মামলার প্রধান সন্দেহভাজন আসামি আকবর এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নাগালেই রয়েছেন। কিন্তু যাবেন কোথায় ধরা আকবরকে পড়তেই হবে। আর তার জন্য গোয়েন্দা টিম হন্য হয়ে খুঁজছে এসআই আকবর কে।শনিবার রাতে গণমাধ্যম কর্মীদের এমন তথ্য জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা। তবে, বন্দরবাজার ফাঁড়ির বরখাস্ত হওয়া ইনচার্জ এসআই আকবর পুলিশি নজরদারিতে রয়েছেন কী না-তা জানা যায়নি। পুলিশি নির্যাতনে ১১ অক্টোবর সকালে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় মারা যান নগরীর আখালিয়ার রায়হান আহমদ।এ ঘটনার সাতদিনে পেরিয়ে গেলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। রায়হান হত্যার ঘটনার অন্যতম অভিযুক্ত বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (বরখাস্ত) এসআই আকবর হোসেন ভূইয়ার পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি রহস্যজনক হিসেবে দেখছেন সচেতনমহল। তার পালিয়ে যাওয়ার পেছনে কারা সহযোগিতা করেছে সেটাও আলোচনা আসছে। ঘটনার পর থেকে বরখাস্ত ও প্রত্যাহার হওয়া দুই এএসআই এবং চার কনস্টেবল পুলিশের পাহারায় সিলেট পুলিশ লাইন্সে রয়েছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঘটনার মূল রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য ইতোমধ্যে কাষ্টঘর এলাকার সুইপার কলোনির সুলাই লালসহ দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। হোতা এসআই আকবর হোসেনসহ জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে এখন উত্তাল সিলেট। বিক্ষোভ প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। সবার কাছে এখন প্রশ্ন আকবর হোসেন ভূইয়া কোথায়? সিলেট মহানগর পুলিশের লাপাত্তা এই সদস্যের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না কোথাও।এরই মধ্যে শনিবার রাতে খবর রটে ‘আকবর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নাগালেই রয়েছেন’

হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের আয়োজনে নবীগঞ্জ থানা পুলিশের সার্বিক তত্বাবধানে নবীগঞ্জে নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। শনিবার সকালে রাজাবাদ প্রাথমকি বিদ্যালয়ে সমাবেশ অনুষ্টিত হয়।বিট অফিসার এস আই সাঈদ এর সভাপতিত্বে ও সহকারী বিট অফিসার এ এস আই সৌরভের সঞ্চালনায় সমাবেশ সভায় পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত করেন এক পুলিশ সদস্য।সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন প্যানেল মেয়র ১ ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এটিএম সালাম,মহিলা কাউন্সিলর রোখেয়া বেগম,সাভেক কাউন্সিলর পানেশ চন্দ্র দাশ, সাংবাদিক মোঃ সফিকুল ইসলাম নাহিদ,ও বিট পুলিশ সদস্য, বিট পুলিশিং কমিঠির সদস্য প্যানেল মেয়র ১ ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এটিএম সালাম, মহিলা কাউন্সিলর রোখেয়া বেগম, সাভেক কাউন্সিলর পানেশ চন্দ্র দাশ, সাংবাদিক মোঃ সফিকুল ইসলাম নাহিদ,এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী বৃন্দ,সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দসহ জনপ্রতিনিধিগণ। নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশে বক্তারা বলেন,
নারী ধর্ষন বিরোধী সমাবেশ আয়োজন করে পুলিশের প্রতি জনগনের আস্থা অর্জনের সচেতনা বৃদ্ধি এগিয়ে আসার জন্য ধন্যবাদ জানান বক্তরা। বক্তরা আরো বলেন আমাদের দেশে ধর্ষনের ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধিপাচ্ছে।  আমরা স্বাধীন দেশে বাস করেও আমরা আজ স্বাধীন নয়। স্বাধীন ভাবে চলা ফেরা করতে পারি না।আমরা ধর্ষন মুক্ত দেশ চাই। নারী পুরুষ সবার সমান অধিকার। নারী হলেন মা ও বোনের জাতী কেন আজ এই নারীরা এত অবহেলিত। প্রধান মন্ত্রীর কাছে অনুরোধ ধর্ষকদের উচিত শিক্ষা দিন সর্বোচ্চ শাস্তি প্রধান করেন। আর অভিবাবকদের  উচিত  আমাদের ছেলে মেয়েদের প্রতি লক্ষ রাখতে হবে যে তারা ঠিক মত স্কুল কলেজে যাচ্ছে কি না। এর পাশা পাশি পুলিশকে ও আমাদের সাহায্য করতে হবে। তাহলে ধর্ষন মুক্ত দেশ গড়তে পারব।

পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশের স্বপ্ন স্লোগান পরিচ্ছন্নতা শুরু হোক আমার থেকেই। আর আমাদের প্রত্যাশা ‘শুরুটা এখানেই, শেষ করার দায়িত্ব আপনার। এ শহর আমার, এ দেশ আমার, পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্বও আমার।বিডি ক্লিন বানিয়াচং শাখার মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।শনিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে বিডি ক্লিন কর্তৃক আয়োজিত বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানা সভাপতিত্বে মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।মাসিক সভায় বক্তব্য রাখেন,উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃআবুল কাশেম চৌধুরী,বানিয়াচং উপজেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বানিয়াচং সার্কেল) শেখ মোহাম্মদ সেলিম,ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক আমীন,হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র'স পারসোনাল সেক্রেটারি শেখ ওসমান গনী রুমি, বিডি ক্লিন হবিগঞ্জ এর সহ সমন্বয়ক বদরুল আলম জয়,বিডি ক্লিন হবিগঞ্জ উপ সমন্বয়ক আইটি এন্ড মিডিয়া সোহান চৌধুরী,বিডি ক্লিন বানিয়াচং উপজেলা সমন্বয়ক এস আর তাকসিন,সমন্বয়ক আইটি এন্ড মিডিয়া শুভ্র ইমন, সমন্বয়ক লজিস্টিক আর এস রিপন সহ উপস্থিত ছিলেন বানিয়াচং উপজেলা বিডি ক্লিন এর সকল সম্মানিত সদস্যবৃন্দ। মাসিক সভায় বক্ততারা বলেন, তাঁদের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। আমি বলব দেশ আমার তাই দেশের দায়িত্ব ও আমার তাই পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে আমাদেরকেই আগামী প্রজন্মের জন্য ।এই কাজ তাঁদের অনুপ্রেরণা জোগানোর জন্য আমাদের সবার তাদের পাশে থাকতে হবে। বিডি ক্লিনের স্বেচ্ছাসেবকেরা চান সচেতনতার বার্তা নিয়ে সবার মাঝে পৌঁছাতে। সবাই নিজের পরিচ্ছন্নতার দায়িত্বটুকু বুঝবে মানবে এবং সবাই সচেতন হবে যত্রতত্র ময়লা ফেলবে না, পরিস্কার পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বিডি ক্লিন কাজ করছে তার জন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে এবং ইনশাআল্লাহ ২০২১ সালের মধ্যে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন একটা বাংলাদেশ গড়তে পারবে বিডি ক্লিন।

 

নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়নের ইমামবাড়ি এলাকায় চুরি করতে এসে জনতার হাতে আটক হয়েছে শামীম মিয়া নামে চোর চক্রের এক সদস্য। এ সময় তার সহযোগী এক চোর পালিয়ে যায়। আটককৃত চোর শামীম লহরজপুর গ্রামের ওয়াহিদ মিয়ার পুত্র। জানা যায়, শুক্রবার ভোর রাতে নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ারভাঙ্গা ইউনিয়নের ইমামবাড়ি এলাকার ইসলাম উদ্দিনের ঘরে চুরির প্রস্তুতি নেয় সঙ্ঘবদ্ধ একটি চোরচক্র। রাত ৩ টার দিকে দুটি স্মার্ট মোবাইলসহ ৫০ হাজার টাকান লুট করে পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতার ধাওয়ায় শামীম মিয়া নামে চোর চক্রের এক সদস্যকে আটক করা হয়। অপর চোরচক্র মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আটককৃত চোর শামিমকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন স্থানীয়রা।

নবীগঞ্জ শ্রমিক ইউনিয়ন এবং মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি মোঃ ইয়াওর মিয়া বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় মিনি বাস মালিক সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া নবীগঞ্জ শ্রমিক ইউনিয়ন এবং মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সেক্রেটারী শ্রমিক নেতা মাহবুবুল আলম সুমন বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় ৪র্থ বারের মতো মিনি বাস মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। গতকাল শনিবার দুপুরে নবীগঞ্জ মালিক সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্টিত সাধারন সভায় সর্ব সম্মতিক্রমে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় তারা নির্বাচিত হন। মিনি বাস মালিক সমিতির অন্যান্য পদে নির্বাচিত হলেন যারা, তারা হলেন সহ-সভাপতি মোঃ ইয়াওর আলী শিকদার, মোঃ আওলাদ হোসেন, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক: হাজী আঃ মতিন, সাংগঠনিক সম্পাদক: মোঃ আঃ বাসিত, কোষাধ্যক্ষ: মোঃ সাহেব আলী, সম্মানিত সদস্য মো: আঃ খালিক, মো: আমির হোসেন।

নবীগঞ্জ উপজেলায় ফুফুর কাছে দর্জি (টেইলারীর)কাজ শিখতে গিয়ি ফুফার যৌন লালসার শিকার হয়েছেন ১৬ বছর বয়সী এক তরুণী। এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই ধর্ষণের ঘটনায় নবীগঞ্জ শহরজুড়ে  চলছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে। এ মামলায় আজির উদ্দিন ও স্ত্রী নাজমা বেগমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায় উপজেলার করগাও ইউনিয়নের শ্রীধরপুর  গুমগুমিয়া জৈনক তরুণী তার ফুফু নাজমা বেগমের ঘরে দর্জি ( টেইলারী ) কাজ শিখতে যায়। গত বুধবার সন্ধ্যার সময় নাজমার স্বামী আজির উদ্দিন ওই তরুণীকে অন্য একটি ঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এতে সহযোগীতা করে নাজমা বেগম। নাজমা বেগম ওই ধর্ষনের ঘটনা তার মোবাইল দিয়ে ভিডিও ধারন করে। মেয়েকে বাড়ীতে আনতে নাজমার বাড়ীতে যান মামলার বাদী ওই তরুনীর মা। তখন তারা তাকে ঘরে প্রবেশ করতে বাধা দেয় এবং তরুণীকে আটকে রাখে। এক পর্যায়ে গ্রামের লোকজন নিয়ে গিয়ে মেয়েকে উদ্ধার করেন।এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে নাজমা ও তার স্বামী আজিরের বিরোদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় নবীগঞ্জ থানার এস আই কামাল আহমেদসহ একদল পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে স্বামী স্ত্রী দুজনকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ আজিজর রহমান।

নবীগঞ্জে মাস্টার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাজী সিরাজুল ইসলাম মাস্টারের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মাসিক ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব গাজী মোঃ শাহনেওয়াজ মিলাদ। এ আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুর্শি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলী আহমেদ মুসা, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী উবায়দুল কাদের হেলাল, নবীগঞ্জ পৌর যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান, ইউপি সদস্য এম এ বাছিত, পৌর আওয়ামীলীগ

সাবেক সহসভাপতি ছালিক মিয়া, পৌর যুবলীগ নেতা এটিএম রুবেল, মাস্টার ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সোহেল আহমদ, উপদেষ্টা আঃ মালেক চৌধুরী, সদস্য ও প্রধান শিক্ষক আব্দুল আওয়াল, প্রতিষ্টাতা সদস্য বদরুজ্জামান ও মির্জা মারুফ আহমেদ, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ মঈনুল ইসলাম দুলাল, মাস্টার ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও নর্দানটন জেনারেল হসপিটাল ইউকে এর কনসালটেন্ট ডাঃ মোঃ খায়রুল ইসলাম হেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মুমিন উদ্দিন চৌধুরী, মুজিবুর রহমান, হাফিজুর রহমান, অলিউর রহমান, আব্দাল মিয়া প্রমুখ। উক্ত স্বাস্থ্য সেবায় শতাধিক রোগেীকে বিনা মুল্যে চিকিৎসা ও ওষধ প্রদান করা হয়।
মাস্টার ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও নর্দানটন জেনারেল হসপিটাল ইউকে এর কনসালটেন্ট ডাঃ মোঃ খায়রুল ইসলাম হেলাল বলেন, সবার সাহায্য সহযোগিতা পেলে আমাদের মাসিক স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র আরো এগিয়ে সাপ্তাহিকে পরিনত হবে। প্রতি ইংরেজী মাসের প্রথম শুক্রবার মাস্টার ফাউন্ডেশনের অস্থায়ী কার্যালয় এনাতাবাদ মাষ্টার বাড়ী এ সেবা প্রদান করা হবে।
প্রধান অতিথি সংসদ সদস্য জননেতা গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ বলেছেন, মানুষের সেবায় যে নিজেকে বিলিয়ে দেয় সেই হচ্ছে প্রকৃত মানুষ। তিনি বলেন, ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত মাষ্টার ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার পর থেকে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান, আর্তমানবতার কল্যাণ তথা শীতবস্ত্র বিতরণ, বন্যা ও সাম্প্রতি করোনা ভাইরাসের কারণে গৃহবন্দি অসহায় মানুষকে খাদ্য সামগ্রী প্রদান, টিউবওয়েল বিতরণসহ সামাজির কর্মকান্ড সত্যি প্রশংসনীয়। সংসদ সদস্য মিলাদ গাজী মাষ্টার ফাউন্ডেশন কে নবীগঞ্জ উপজেলায় মানবতার কল্যাণে এক অনন্য উজ্জ্বল দাতব্য প্রতিষ্ঠান। তিনি মাষ্টার ফাউন্ডেশন এর উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন।

হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের আয়োজনে নবীগঞ্জ থানা পুলিলেরর সার্বিক তত্বাবধানে নবীগঞ্জে নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। শনিবার সকালে নতুন বাজার মোড়ে  সমাবেশ অনুষ্টিত হয়।বিট অফিসার এস আই মহিউদ্দিন রতনের সভাপতিত্বে ও সহকারী বিট অফিসার এ এস আই বিকাশ চন্দ্র দেবনাথের সঞ্চালনায় সমাবেশ সভায় পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত করেন আনমুনু জামে মসজিদের ঈমাম মোঃ মুজ্জামিল হক,গীতা পাঠ করেন অঞ্জন সূত্রধর।সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেনন জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুল মালিক,নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর মিয়া, পৌর কাউন্সিলর আব্দুস সালাম, সুন্দর আলী, সাংবাদিক ও বিট পুলিশ সদস্য ইমদাদুল হক, বিট পুলিশিং কমিঠির সদস্য আব্দুল আলীম,নানু মিয়া, মুকিত মিয়া, হাফিজুর রহমান মিলন,বাবুল দাশ,কাজল মিয়া,নবীগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ হাসান চৌধুরী,বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী বৃন্দ,সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দসহ জনপ্রতিনিধিগণ।

নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশে বক্তারা বলেন,নারী ধর্ষন বিরোধী সমাবেশ আয়োজন করে পুলিশের প্রতি জনগনের আস্থা অর্জনের সচেতনা বৃদ্ধি এগিয়ে আসার জন্য ধন্যবাদ জানান বক্তরা। বক্তরা আরো বলেন আমাদের দেশে ধর্ষনের ঘটনা দিন দিন বৃদ্ধিপাচ্ছে।  আমরা স্বাধীন দেশে বাস করেও আমরা আজ স্বাধীন নয়। স্বাধীন ভাবে চলা ফেরা করতে পারি না।আমরা ধর্ষন মুক্ত দেশ চাই। নারী পুরুষ সবার সমান অধিকার। নারী হলেন মা ও বোনের জাতী কেন আজ এই নারীরা এত অবহেলিত। প্রধান মন্ত্রীর কাছে অনুরোধ ধর্ষকদের উচিত শিক্ষা দিন সর্বোচ্চ শাস্তি প্রধান করেন। আর অভিবাবকদের  উচিত  আমাদের ছেলে মেয়েদের প্রতি লক্ষ রাখতে হবে যে তারা ঠিক মত স্কুল কলেজে যাচ্ছে কি না। এর পাশা পাশি পুলিশকে ও আমাদের সাহায্য করতে হবে। তাহলে ধর্ষন মুক্ত দেশ গড়তে পারব।

  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular
X

দুঃখিত !

ওয়েব সাইটে এই অপশন নাই।