Monday, 26 October 2020 16:58

শিক্ষাবিদ সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদির আর নেই

মোঃ সফিকুল ইসলাম নাহিদ

প্রধান প্রতিবেদক.

This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী, সমাজসেবক, সরকারের সাবেক উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, ঢাকাস্থ জালালাবাদ এসোসিয়েশনের প্রাক্তন সভাপতি সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদির (৮০) আর নেই। সোমবার বিকাল ৫টার দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি দুই ছেলেসহ অসংখ্য স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ধানমন্ডি ঈদগাহ মসজিদে তাঁর নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। মরহুমের গ্রামের বাড়ি মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় বরইউরি। অত্যন্ত সদালাপী এবং গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিত্ব সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদির ছাত্রজীবনে (৬০-এর দশকের প্রারম্ভে) সিলেটের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ এমসি কলেজ ছাত্র সংসদের জিএস ছিলেন। মৌলভীবাজার সরকারি কলেজে শিক্ষকতার মাধ্যমে কর্মজীবনে পদার্পন করা সৈয়দ মুক্তাদির পরবর্তীতে পকিস্তান ট্যাক্সেশন সার্ভিসে যোগ দেন। স্বাধীনতা উত্তর টিএন্ডটি বোর্ডের সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিবসহ সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন তিনি।

৪৫ বছর বয়সে সরকারি চাকরি থেকে স্বেচ্ছা অবসর গ্রহণকারী ওই ব্যক্তিত্ব নিজেকে সমাজসেবায় নিয়োজিত করেন। জালালাবাদ এসোসিয়েশন ঢাকার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করা ছাড়াও তিনি নিজ জেলার ঢাকাস্থ বাসিন্দাদের নিয়ে গড়া সংগঠন মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সভাপতি ও সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জালালাবাদ ভবন ট্রাস্টের সদস্য, ইএনটি ফাউন্ডেশনের কোষাধ্যক্ষ, ওসমানী স্মৃতি পরিষদের সভাপতিসহ বহু সামাজিক সংগঠনের সদস্য ছিলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ বিশিষ্টজনদের শোক
ঢাকাস্থ সিলেটের বাসিন্দাদের অন্যতম মুরব্বি সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদিরের মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেনসহ বিশিষ্টজনরা গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রেরিতে এক শোক বার্তায় মন্ত্রী মোমেন বলেন, সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদির ছিলেন অত্যন্ত সদালাপী, পরপোকারী ও সজ্জন ব্যক্তিত্ব। সবার সুখে-দুঃখে তিনি সব সময় এগিয়ে আসতেন। ড. মোমেন মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

এদিকে শিক্ষাগুরুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন তিনি।

ওদিকে সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদিরের মৃত্যুতে রীতিমতো শোক সাগরে ভাসছেন জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সদস্যরা। অনেকে মানবজমিন অফিসে ফোন করেছেন, কেউ কেউ শোকবার্তাও পাঠিয়েছেন। জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি ড. একে আব্দুল মুবিন, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জসিম উদ্দিন আহমদ, জালালাবাদ ভবন ট্রাস্টের চেয়োরম্যান আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সেক্রেটারী আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, জালালাবাদ শিক্ষা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ ফরাস উদ্দিন ও সেক্রেটারী জালাল আহমদ এক যুক্ত বিবৃতিতে সৈয়দ আব্দুল মুক্তাদিরের বিদায়ে গভীর শোক প্রকাশ করা ছাড়াও তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। সেই সঙ্গে তার পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনাও জ্ঞাপন করেন। ব্যক্তি জীবনে সৈয়দ মুক্তাদির মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল আতাউল গনি ওসমানীর ভাগ্নে ছিলেন।

Last modified on Monday, 26 October 2020 17:04
Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular