Monday, 03 June 2019 10:15

নবীগঞ্জে ববিয়ানা পাওয়ার প্লান্টের লক্ষাধিক টাকার চুরি

আলমগীর মিয়া.

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : দৈনিক নবীগঞ্জের ডাক।


বুলবুল আহমদ, নবীগঞ্জ : নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের পারকুল-বনগাঁও বিবিয়ানা পাওয়ার প্লান্ট থেকে গতকাল শনিবার গভীর রাতে পুরাতন ইস্পাত লোহার এ্যাংগেল চুরি করে পাচারের স্থানীয় জনতা আটক করে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ বিষয়টি অবগত করলে পুলিশের উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে চুনাইকৃত লোহার যন্ত্রাংশ ফেলে পাচারকারী চক্রেরা সু-কৌশলে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ চোরাইকৃত লোহা উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এলাকাবাসীর সূত্রে জানাযায়, এশিয়ার বৃহত্তম বিবিয়ান গ্যাস ও বিদ্যুৎ কেন্দ্রে দীর্ঘদিন ধরে চলছে নানা অনিয়ম দূর্নীতি। বিবিয়ানা পাওয়ার প্লান্ট-১ ও বিবিয়ানা-২ থেকে সঙ্গবদ্ধ একটি চুর চক্র সরকারের কোটি টাকার মূল্যের লোহা ইস্পাত সহ নানা রকম পুরাতন লোহার মালামাল সহ বিভিন্ন আসবাবপত্র চুরি করে বিক্রি করে আসছিল বলে এলাকার অনেকেই অভিযোগ করে বলেন। চোরাই সিন্ডিকেটের লোকজন অনেক প্রভাবশালী হওয়ায় তারা সব সময়ই ধরাছুয়ার বাহিরে রয়েছে। গত শনিবার দিবাগত গভীর রাতে পারকুল গ্রামের রিবু, সাজিদ ও রিপন গংরা বিবিয়ানা পাওয়ার প্লান্ট থেকে লক্ষাধিক টাকার ইস্পাত ও লোহার এ্যাংগেল চুরি করে দুটি টমটম যোগে নিয়ে আসার সময় মহা সড়কের সৈয়দপুর বাজারে আসা মাত্রই তাদের বহণকৃত টমটম নষ্ট হয়ে যায়। পরে তা কোন রকম মেরামত করে আউশকান্দি ভাঙ্গারী ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রয় করতে চাইলে কিন্তু না রাখায় পরে তারা নবীগঞ্জ নিয়ে যেতে চাইলে টমটম চালকরা অপারগত প্রকাশ করে যে, তারা যেতে পারবেনা। এই সময় একটি ট্রাক ম্যানেজ করে ঔ ট্রাকে মালামাল তুলছি। এতে ট্রাক মালিকের সন্ধেহ হলে তিনি তাদের বাড়ি-ঘর জানতে চান। এবং এই মাণ নবীগঞ্জ কোথায় নিয়ে যাওয়া হলে তারা বলে ভাঙ্গারীর কাছে যাব বিক্রয় করার জন্য। এসব শুনে ট্রাক মালিক তার পরিচন দেন যে তিনি একজন ইউপি সদস্য ফজলুল করিম মিছবাহ। কেথায় থেকে এই মালামাল তুমরা এনেছ। আর এখন কোথায় নিয়ে যাবে? আমি কি ভাবে  চুরাই মালামাল কি ভাবে নিয়ে যাব। এসব কথা জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে গাড়ি থেকে তুমার এই মালামাল নামিয়ে সু-কৌশলে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দিলে নবীগঞ্জ থানার এসআই কাউছার আহমদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লোহার ইস্পাত ও এ্যাংগেল উদ্ধার করে থানা নিয়ে যান। এ ব্যাপারে পারকুল গ্রামের ইউপি সদস্য হাজী দুলাল মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমাদের গ্রামের রিবু, সাজিদ ও রিপন গংরা পুরাতন লোহার ইস্পাত ও এ্যাংগেল চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় আমার এলাকার অনেক লোকজন দেখেছেন। এবং আমাকে বিষয়টি অবগত করেন। এ খবর পেয়ে আমি সেখানে যাই। তবে, মালামাল বা কাউকে আমি পাইনি।
এই চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ বিবিয়ানা পাওয়ার প্লান্ট ও বিদ্যুৎ প্লান্টের বিভিন্ন মালামাল চুরির সাথে জড়িত রয়েছে।  এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার এসআই কাওছার আহমদ জানান, আমি খবর পেয়ে আউশকান্দি এলাকার দেওতৈল ভাঙ্গারীর দোকান থেকে চোরাইকৃত মালামাল গুলি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্য (ওসি) মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন জানান, ঘটনার খবর পেয়ে আমি একদল পুলিশ পাঠিয়েছি এবং তারা মালামাল জব্দ করে থানায় নিয়ে এসেছে। এ ঘটনার তদন্ত চলছে, প্রমাণ পাওয়া মাত্রই দূষিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Last modified on Tuesday, 04 June 2019 16:44
Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular
X

দুঃখিত !

ওয়েব সাইটে এই অপশন নাই।